বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে বসবাস করছে অসংখ্য রোহিঙ্গা। তারা মূলত মিয়ানমারের নির্যাতন-নীপিড়নের এবং বাসেস্থানচুত্যে হয়ে বাংলাদেশে অবস্থান নিয়েছে। এদিকে এই বিপুল সংখ্যাক রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বেশ বিপাকে পড়েছে বাংলাদেশ সরকার। তবে বাংলাদেশ সরকার এই সকল রোহিঙ্গানের অধিকার এবং বাসেস্থান নিশ্চিতে আপ্রান ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সম্প্রতি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে এম আব্দুল মোমেন মুজিববর্ষ উপলক্ষে রাঙামাটিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড আয়োজিত বঙ্গবন্ধু অ্যাডভেঞ্চার উৎসবের উদ্বোধনে এই রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে বেশ কিছু কথা তুলে ধরেছেন।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে এম আব্দুল মোমেন বলেছেন, ’ভারত সরকার বারবার অঙ্গীকার করেছে তারা যখন ভ্যাকসিন পাবে, আমরাও একই সময়ে ভ্যাকসিন পাবো। এটি ভারত সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ের সিদ্ধান্ত। আমরা ভারতের ওপর বিশ্বাস রাখতে চাই।’ সোমবার (১১ জানুয়ারি) সকালে মুজিববর্ষ উপলক্ষে রাঙামাটিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড আয়োজিত বঙ্গবন্ধু অ্যাডভেঞ্চার উৎসবের উদ্বোধন করেন তিনি। এসময় করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিনের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একথা বলেন। রোহিঙ্গা ইস্যুতে আবদুল মোমেন বলেন, আমরা এত অমানবিক নই যে, রোহিঙ্গাদের বিপদে ফেলবো। অন্য কেউ তো তাদের নিতে আসেনি, আমরাই তাদের আশ্রয় দিয়েছি। ভাসানচর কাজ করার বিষয়ে আন্তর্জাতিক মহলের ভালো সাড়া পাচ্ছি।

এদিকে প্রায় সময় বাংলাদেশ সরকার বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আসছে রোহিঙ্গাদের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য। এমনকি এই রোহিঙ্গাদের উদ্দেশ্যে করে বাংলাদেশের পক্ষ নিয়ে আর্ন্তজাতিক আদালতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে দক্ষিন আফ্রিকার অন্যতম একটি দেশ গাম্বিয়া। বর্তমান সময়ে এই মামলাটি চলমান রয়েছে।