প্রাননাশকারী করোনা ভাইরাসের প্রকোপে দীর্ঘ দিন ধরে দেশের সরকারি-বেসরকারি সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এতে করে বেশ বিপাকে পড়েছে দেশের সকল শিক্ষার্থীরা। অবশ্যে শুধু বাংলাদেশেই নয় গোটা বিশ্ব জুড়েই এমন পরিস্তিতি বিরাজ করছে। তবে এবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা প্রসঙ্গে বিশেষ নির্দেশনা দিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
করোনার কারণে এক বছর ধরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পর এখন তা খুলবে কি না, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাতে সংশ্লিষ্টদের নিয়ে বৈঠক করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর ব্রিফিংয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এ তথ্য জানান। আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক করে শিগগিরই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলেও জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি মন্ত্রিসভা বৈঠক হয়। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী ও সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে যোগ দেন।

এদিকে সোমবার পূর্বনির্ধারিত জরুরি সংবাদ সম্মেলনে আসছেন শিক্ষামন্ত্রী। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, করোনাকালে উচ্চশিক্ষার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী অনলাইন সংবাদ সম্মেলন করবেন। সোমবার দুপুর ২টায় এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। কয়েক ধাপে বাড়ানোর পর ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় এস এস সি এবং এইচ এস সি পরীক্ষায় ছাত্র-ছাত্রীদের অটোপাস দিয়েছে। এমনকি করোনার কারনে শিক্ষাখাতে সৃষ্ট সকল ক্ষতি নিরসনের জন্য নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবং সেই মোতাবেক কাজ করছে দায়িত্ব প্রাপ্ত ব্যক্তিরা।