বর্তমান বাংলাদেশ সরকারের দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা। তিনি পরপর তিন বার নির্বাচিত হয়ে এই দেশের সরকার গঠন করতে সক্ষম হয়েছেন। এবং দেশের উন্নয়নের জন্য নিরলস ভাবে কাজ করছেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি নতুন এক আকাঙ্ক্ষার কথা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
আগামীতে বাংলাদেশেই যু/দ্ধ বিমান তৈরির প্রবল আকাঙ্ক্ষা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমাদের একটা আকাঙ্ক্ষা আছে, বাংলাদেশেই যু/দ্ধ বিমান তৈরি করতে চাই। কাজেই এর ওপর গবেষণা করা এবং আমাদের আকাশসীমা আমরা নিজেরাও যেন রক্ষা করতে পারি সেভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছি। মঙ্গলবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যশোরে বিমান বাহিনীর ঘাঁটি বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানে বিমান বাহিনীর ১১ এবং ২১ স্কোয়াড্রনকে ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বিমান বাহিনীর আধুনিকায়নে সরকারের বিভিন্ন কার্যক্রমের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণে উৎকর্ষ আনতে বিমান বাহিনী একাডেমির জন্য এই ঘাঁটিতে নির্মাণ করা হয়েছে আন্তর্জাতিক মানের ’বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্স’। মহাকাশ গবেষণা, দেশের বিমান বা/হি/নী এবং বেসামরিক বিমানকে দ্রুত এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে আমরা প্রতিষ্ঠা করেছি ’বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অ্যাভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়’। যেটা লালমনিরহাটে প্রতিষ্ঠা হবে।

’ইতোমধ্যে তার কাজ আমরা শুরু করেছি। এসব কার্যক্রম বিমান বাহিনীর সক্ষমতা বহুলাংশে বাড়িয়েছে। আজ বাংলাদেশ বিমান বাহিনী দেশে ও দেশের বাইরে এক সম্মানজনক অবস্থায় উন্নীত হয়েছে। তাছাড়া আমরা যেহেতু জাতিসংঘ মিশনেও বাংলাদেশ ভূমিকা রাখছে। সেক্ষেত্রেও বিমান বাহিনীকেও আমরা উপযুক্ত করে গড়ে তুলছি। ’বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে সঙ্গে আমরা অ্যারোনটিক্যাল সেন্টার নির্মাণ করছি। আর আমাদের একটা আকাঙ্ক্ষা আছে, বাংলাদেশেই আমরা আমাদের যুদ্ধ বিমান তৈরি করবো। দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষা করা এবং প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রে আরও কয়েক ধাপ এগিয়ে যাওয়ার পদক্ষেপ আমরা নিয়েছি। ইনশাল্লাহ আমরা এ ব্যাপারে সাফল্য অর্জন করবো বলে বিশ্বাস করি। ’

বহিরাগত শত্রুদের থেকে দেশের শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য বিশেষ ভাবে কাজ করে থাকে বি/মা/ন বাহিনী, সে/না/বা/হি/নী এবং বি/জি/বি। তবে এই তিন বাহিনীর উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন শেখ হাসিনা। এমনকি এই তিন বাহিনীর শক্তি বৃদ্ধির জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে নানা ধরনের সরঞ্জাম ক্রয় করছে বর্তমান সরকার।
আমাদের একটা আকাঙ্ক্ষা আছে, সেভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছি: শেখ হাসিনা
Logo
Print

Tuesday, 23 February 2021 জাতীয়

 

বর্তমান বাংলাদেশ সরকারের দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা। তিনি পরপর তিন বার নির্বাচিত হয়ে এই দেশের সরকার গঠন করতে সক্ষম হয়েছেন। এবং দেশের উন্নয়নের জন্য নিরলস ভাবে কাজ করছেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি নতুন এক আকাঙ্ক্ষার কথা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
আগামীতে বাংলাদেশেই যু/দ্ধ বিমান তৈরির প্রবল আকাঙ্ক্ষা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমাদের একটা আকাঙ্ক্ষা আছে, বাংলাদেশেই যু/দ্ধ বিমান তৈরি করতে চাই। কাজেই এর ওপর গবেষণা করা এবং আমাদের আকাশসীমা আমরা নিজেরাও যেন রক্ষা করতে পারি সেভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছি। মঙ্গলবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যশোরে বিমান বাহিনীর ঘাঁটি বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানে বিমান বাহিনীর ১১ এবং ২১ স্কোয়াড্রনকে ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বিমান বাহিনীর আধুনিকায়নে সরকারের বিভিন্ন কার্যক্রমের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণে উৎকর্ষ আনতে বিমান বাহিনী একাডেমির জন্য এই ঘাঁটিতে নির্মাণ করা হয়েছে আন্তর্জাতিক মানের ’বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্স’। মহাকাশ গবেষণা, দেশের বিমান বা/হি/নী এবং বেসামরিক বিমানকে দ্রুত এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে আমরা প্রতিষ্ঠা করেছি ’বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অ্যাভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়’। যেটা লালমনিরহাটে প্রতিষ্ঠা হবে।

’ইতোমধ্যে তার কাজ আমরা শুরু করেছি। এসব কার্যক্রম বিমান বাহিনীর সক্ষমতা বহুলাংশে বাড়িয়েছে। আজ বাংলাদেশ বিমান বাহিনী দেশে ও দেশের বাইরে এক সম্মানজনক অবস্থায় উন্নীত হয়েছে। তাছাড়া আমরা যেহেতু জাতিসংঘ মিশনেও বাংলাদেশ ভূমিকা রাখছে। সেক্ষেত্রেও বিমান বাহিনীকেও আমরা উপযুক্ত করে গড়ে তুলছি। ’বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে সঙ্গে আমরা অ্যারোনটিক্যাল সেন্টার নির্মাণ করছি। আর আমাদের একটা আকাঙ্ক্ষা আছে, বাংলাদেশেই আমরা আমাদের যুদ্ধ বিমান তৈরি করবো। দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষা করা এবং প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রে আরও কয়েক ধাপ এগিয়ে যাওয়ার পদক্ষেপ আমরা নিয়েছি। ইনশাল্লাহ আমরা এ ব্যাপারে সাফল্য অর্জন করবো বলে বিশ্বাস করি। ’

বহিরাগত শত্রুদের থেকে দেশের শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য বিশেষ ভাবে কাজ করে থাকে বি/মা/ন বাহিনী, সে/না/বা/হি/নী এবং বি/জি/বি। তবে এই তিন বাহিনীর উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন শেখ হাসিনা। এমনকি এই তিন বাহিনীর শক্তি বৃদ্ধির জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে নানা ধরনের সরঞ্জাম ক্রয় করছে বর্তমান সরকার।
Template Design © Joomla Templates | GavickPro. All rights reserved.