বাংলাদেশ সহ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে সম্প্রতি কোভিড১৯ ভাইরাসের সংক্রমন মারাত্মক আকার ধারন করেছে। ইতিমধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ এই ভাইরাস মোকাবিলায় কঠোর অবস্থান নিয়েছে। বাংলাদেশও গ্রহন করেছে নানা ধরনের পদক্ষেপ। এমনকি বাংলাদেশ এই ভাইরাস মোকাবিলায় যুক্তরাজ্য বাদে ইউরোপ ও ১২ দেশ থেকে বাংলাদেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।
যুক্তরাজ্য বাদে পুরো ইউরোপ ও ১২টি দেশ থেকে বাংলাদেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। এই নিষেধাজ্ঞা ৩ থেকে ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত কার্যকর থাকবে। ইউরোপের বাইরে ১২টি দেশ হলো- আর্জেন্টিনা, বাহারাইন, ব্রাজিল, চিলি, জর্ডান, কুয়েত, লেবানন, পেরু, কাতার সাউদ আফ্রিকা, তুরস্ক ও উরুগুয়ে। বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) বেবিচকের ফ্লাইট স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড রেগুলেশন বিভাগের সদস্য চৌধুরী এম জিয়া উল কবির স্বাক্ষরিত এক সার্কুলারে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে উল্লেখ করা হয়েছে, যেসব দেশ থেকে বাংলাদেশে আসার বিষয়ে কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই সেসব দেশের যাত্রীদেরও প্রত্যেকের করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট (৭২ ঘণ্টা আগের পরীক্ষা করা) থাকতে হবে। এছাড়া চার দিন বাধ্যতামূলক প্রতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। আর যদি করোনার কোনও লক্ষণ থাকে তাহলে নিজ খরচে সরকার নির্ধারিতস্থানে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। অন্যদিকে, কেউ যদি করোনার সার্টিফিকেট না নিয়ে আসে তাহলে ৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টি শেষে নিজ খরচে পরীক্ষার পর ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিন।

ইতিমধ্যে বাংলাদেশ সরকার এই প্রাননাশকারী করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় দেশের জনগনের উদ্দেশ্যে ১৮টি নির্দেশনা জারি করেছে। এমনকি কঠোর ভাবে এই নির্দেশনা গুলো মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন।
বাংলাদেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা পুরো ইউরোপ সহ ১২টি দেশের প্রতি
Logo
Print

Thursday, 01 April 2021 জাতীয়

 

বাংলাদেশ সহ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে সম্প্রতি কোভিড১৯ ভাইরাসের সংক্রমন মারাত্মক আকার ধারন করেছে। ইতিমধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ এই ভাইরাস মোকাবিলায় কঠোর অবস্থান নিয়েছে। বাংলাদেশও গ্রহন করেছে নানা ধরনের পদক্ষেপ। এমনকি বাংলাদেশ এই ভাইরাস মোকাবিলায় যুক্তরাজ্য বাদে ইউরোপ ও ১২ দেশ থেকে বাংলাদেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।
যুক্তরাজ্য বাদে পুরো ইউরোপ ও ১২টি দেশ থেকে বাংলাদেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। এই নিষেধাজ্ঞা ৩ থেকে ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত কার্যকর থাকবে। ইউরোপের বাইরে ১২টি দেশ হলো- আর্জেন্টিনা, বাহারাইন, ব্রাজিল, চিলি, জর্ডান, কুয়েত, লেবানন, পেরু, কাতার সাউদ আফ্রিকা, তুরস্ক ও উরুগুয়ে। বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) বেবিচকের ফ্লাইট স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড রেগুলেশন বিভাগের সদস্য চৌধুরী এম জিয়া উল কবির স্বাক্ষরিত এক সার্কুলারে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে উল্লেখ করা হয়েছে, যেসব দেশ থেকে বাংলাদেশে আসার বিষয়ে কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই সেসব দেশের যাত্রীদেরও প্রত্যেকের করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট (৭২ ঘণ্টা আগের পরীক্ষা করা) থাকতে হবে। এছাড়া চার দিন বাধ্যতামূলক প্রতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। আর যদি করোনার কোনও লক্ষণ থাকে তাহলে নিজ খরচে সরকার নির্ধারিতস্থানে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। অন্যদিকে, কেউ যদি করোনার সার্টিফিকেট না নিয়ে আসে তাহলে ৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টি শেষে নিজ খরচে পরীক্ষার পর ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিন।

ইতিমধ্যে বাংলাদেশ সরকার এই প্রাননাশকারী করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় দেশের জনগনের উদ্দেশ্যে ১৮টি নির্দেশনা জারি করেছে। এমনকি কঠোর ভাবে এই নির্দেশনা গুলো মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন।
Template Design © Joomla Templates | GavickPro. All rights reserved.